চুয়াডাঙ্গা:

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলায় এক দম্পতির রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। রোববার (৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় উপজেলার হাউলী ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে তাদের নিজ বাড়ি থেকে মরদেহ দুটি উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহতরা হলেন হাউলী ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের ইয়ার আলী (৫৮) ও তার দ্বিতীয় স্ত্রী রোজিনা খাতুন।

জানা গেছে, ইয়ার আলী ও রোজিনা খাতুন গত শনিবার সন্ধ্যায় খাওয়া-দাওয়া শেষে নিজ ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। রোববার সকাল থেকে ওই বাড়িতে কাউকে আসা-যাওয়া করতে না দেখে এবং তাদের কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে প্রতিবেশীদের সন্দেহ হয়। প্রতিবেশীরা রোববার সন্ধ্যায় জানালা দিয়ে ঘরের ভেতরে উঁকি মেরে দেখেন ইয়ার আলী ও রোজিনা খাতুনের মরদেহ ঘরের ভেতর পড়ে আছে। এরপর তারা পুলিশে খবর দিলে দামুড়হুদা থানা পুলিশ সন্ধ্যায় তাদের জবাই করা মরদেহ উদ্ধার করেন।

পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে, শনিবার রাতের কোনো এক সময় দুর্বৃত্তরা তাদেরকে জবাই করার পর হত্যা নিশ্চিত করে পালিয়েছে।

দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল খালেক বলেন, এলাকাবাসীর কাছ থেকে খবর পেয়ে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য তাদের মরদেহ চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতারের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here